কোলকাতা

by Saikat Mukherjee

সর্বোপরি তোমার কাছে, ধুলো ঘামের মিশ্রণের সাথে,
বুক চিঁড়ে বহিত ধারার ছোঁয়ায়
জন্ম মৃত্যুর ধারাবাহিকতার সঙ্গে,
আজও জানু দুটো তোমার সামনেই নোয়ায়।

সর্বোপরি তোমার জন্য অদ্ভুত নিবিড় টানে,
তোমার ঘোলাটে বিভার মাধুর্য প্রীতে
কদাচিৎ নীলাম্বরের দর্শনেও অবিকার থাকি,
তোমার ভারী বাতাসের শীতে।

সর্বোপরি মৎস্য বিমুখ হয়েও,
অভ্যস্ত হয়েছে বিহারের নিরামিষ ভোজে।
তবু তোমার দেখার জাদু স্পর্শে,
মাছের আঁশেও কেন জানি সুবাস খোঁজে ।

সর্বোপরি প্রাত্যহিক জীবনের শব্দ দূষণে,
ভ্রু কুঞ্চন আর সহস্র বাতির চোখ ধাঁধানোর শেষে,
অকৃত্রিম দুটো বাংলায় হাঁক যেন বলে ওঠে,
যেন মৃত্যুর মুখদর্শী হই তোমারই ঘর্মাক্ত বেশে।

এবং সর্বোপরি যখন ভেসে ওঠে- ছাই রাস্তার বুক চিঁড়ে
অসংখ্য লৌহ রেলের সমাহার;
তখন স্বর্গোদ্যানের দর্শনে আর বি.বা.দি বাগের কাননে বারংবার ধ্বনিত হয়
কোথায় আছে শহর, দ্বিতীয় এই প্রকার!

 

-সৈকত মুখার্জ্জী

Advertisements